Kolkata

বড় খবর! আবাসে অনুমোদনের সময়সীমা বাড়াল কেন্দ্র! কবে পর্যন্ত মিলবে বাড়ি?

Pradhan Mantri Awas Yojana 167361000816x9 scaled

বড় খবর! আবাসে অনুমোদনের সময়সীমা বাড়াল কেন্দ্র! কবে পর্যন্ত মিলবে বাড়ি?

কলকাতা: নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে বাড়ি তৈরি না করা গেলে রাজ্যের বরাদ্দ কোটা অন্য রাজ্যকে দিয়ে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ আবাস যোজনায় রাজ্যকে অনুমোদন দেওয়ার সময় এমনটাই শর্ত দেওয়া হয়েছিল কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে। আর এবার কার্যত বুমেরাং হল। কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক ফের তাদের সিদ্ধান্ত বদল করল। আরও একমাস সময় সীমা বাড়ানো হল কেন্দ্র গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়ার জন্য। অর্থাৎ ৩১ শে জানুয়ারি পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ আবাস যোজনার অধীনে বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়া যাবে। এই মর্মে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে রাজ্যকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে।যদিও বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়ার সময়সীমা শেষ ছিল ৩১শে ডিসেম্বর।

যদিও নবান্নের তরফে সেই সময়সীমা বাড়ানোর আর্জি রাখা হয়েছিল। কিন্তু কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক সেই আর্জি, প্রথম দফায় খারিজ করে রাজ্যকে একাধিক শর্ত দিয়ে পাঠিয়েছিল প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ আবাস যোজনার জন্য। আর এবার সেই পথেই হাঁটল কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক। তবে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের এই সিদ্ধান্ত বদল কেন?

আরও পড়ুন: ‘একজন বাবা হিসেবে আমি…’ হুক্কা বার নিয়ে আদালতের নির্দেশে যা বললেন ফিরহাদ হাকিম

নবান্নের আধিকারিকদের একাংশের ব্যাখ্যায় কেন্দ্রীয় বরাদ্দ পেয়েও বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়ার ক্ষেত্রে একাধিক রাজ্য পিছিয়ে পড়েছে। বিশেষত উত্তর প্রদেশর মত রাজ্যগুলি ও এখনো পর্যন্ত গ্রামীন আবাস যোজনার লক্ষাধিক অনুমোদন বকেয়া রয়েছে। সেক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে বাড়ি তৈরির অনুমোদন না দেওয়া হলে সেই রাজ্যের কোটা অন্য রাজ্যে চলে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে অন্যান্য রাজ্যগুলিরও বরাদ্দ কোটা অন্য রাজ্যে চলে যেতে পারে। তার জন্যই এই বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়ার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে বলেই দাবি নবান্নের আধিকারিকদের একাংশের।

আরও পড়ুন: সিগারেট খাওয়ার অনুমোদন থাকলে, হুক্কাতে বাধা কোথায়? বিস্ফোরক বিচারপতি মান্থা!

প্রসঙ্গত ৩১ শে ডিসেম্বর এর মধ্যে রাজ্যের বরাদ্দ হওয়া ১১ লক্ষ ৩৬ হাজার ৪৮৮ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়ার কাজ শেষ করতে হবে। না হলে পড়ে থাকা বরাদ্দ চলে যাবে অন্য রাজ্যের কাছে। এমনই একগুচ্ছ শর্ত দিয়ে গত ২৪ শে নভেম্বর পশ্চিমবঙ্গ কে আবাস যোজনা প্রকল্পের বরাদ্দ দেয় কেন্দ্র। রাতদিন এক করে রাজ্য প্রশাসনের তরফে আবাস যোজনার বাড়ি অনুমোদনের জন্য নেমে পড়ে। ১০ লক্ষ ৫০ হাজার বাড়ি তৈরির অনুমোদন দিয়ে দেওয়া হয়। নাম বাদ দেওয়া হয় একাধিক উপভোক্তাদের তালিকা থেকে। বিভিন্ন জেলায় বিক্ষিপ্তভাবে বিক্ষোভ এর ঘটনা ঘটে। নবান্নের আধিকারিকদের ব্যাখ্যা সারা দেশে এখনো পর্যন্ত প্রায় ১৪ লক্ষ বাড়ি তৈরির অনুমোদন দেওয়া যায়নি। তবে অনুমোদনের সময়সীমা বাড়ানো হলেও প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ আবাস যোজনায় কেন্দ্রের তরফে এখনো রাজ্যকে অর্থ বরাদ্দ করা হয়নি। যা নিয়েও কেন্দ্র – রাজ্য দড়ি টানাটানি চলছে।

আপাতত গ্রামীণ আবাস যোজনার অধীনে বাড়ি তৈরির অনুমোদনের কাজ শেষ হলেও কেন্দ্রীয় বরাদ্দ না আসায় বাড়ি তৈরির কাজ কার্যত থমকে রয়েছে। উল্টে কেন্দ্রীয় গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে রাজ্যকে চিঠি পাঠিয়ে একাধিক প্রশ্নমালার উত্তর চাওয়া হয়েছে। বিশেষত আগের দেওয়া টাকার হিসেব দিতে বলা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। তারপরেই পরবর্তী কিস্তির টাকা দেওয়া হবে রাজ্যকে। ইতিমধ্যেই আবাস যোজনায় কেন্দ্র কেন টাকা দিচ্ছে না তা নিয়ে ফের সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কেন্দ্রকে কড়া আক্রমণও করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি আবাস যোজনা নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্যে কেন্দ্রীয় দল পরিদর্শন ও করে গিয়েছে।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

দ্বারা প্রকাশিত:Sanjukta Sarkar

প্রথম প্রকাশিত:

ট্যাগ: আবাস যোজনা, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, পশ্চিমবঙ্গের খবর

Kolkata
#বড #খবর #আবস #অনমদনর #সমযসম #বডল #কনদর #কব #পরযনত #মলব #বড়

bhartiya dainik patrika

Yash Studio Keep Listening

yash studio

Connect With Us

Watch New Movies And Songs

shiva music

Read Hindi eBook

ebook-shiva-music

Bhartiya Dainik Patrika

bhartiya dainik patrika

Your Search for Property ends here

suneja realtor

Get Our App On Your Phone!

X