Jharkhand

ঝাড়খণ্ড: বজরং দলের কর্মী খুনের দুই অভিযুক্ত গ্রেফতার, চক্রধরপুরে বোমা নিক্ষেপ

arrest 1644211580

ঝাড়খণ্ড: বজরং দলের কর্মী খুনের দুই অভিযুক্ত গ্রেফতার, চক্রধরপুরে বোমা নিক্ষেপ


গ্রেফতার প্রতীক
ছবি: amar ujala

খবর শুনুন

ঝাড়খণ্ডের চক্রধরপুরে বজরং দলের কর্মী খুনের ঘটনায় দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত দুই আসামির নাম গুলজার হোসেন (২৫) ও মতিউর রহমান (২৭)।

12 নভেম্বর, চক্রধরপুর শহরের ভারত ভবন চকে বজরং দলের কর্মী কমলদেব গিরি (35) এর উপর একটি বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছিল। এর জেরেই গিরি মারা যায়। মঙ্গলবার, পুলিশ বলেছে যে হত্যার ঘটনাটি গিরি এবং সতীশ প্রধানের মধ্যে এলাকায় আধিপত্যের জন্য দীর্ঘ লড়াইয়ের ফল। পশ্চিম সিংভূম জেলার পুলিশ সুপার আশুতোষ শেখর জানিয়েছেন, প্রধান এই মামলার প্রধান অভিযুক্ত। তাকে এখনো গ্রেফতার করা হয়নি।

খুনের তদন্তে এসআইটি গঠন করা হয়েছে
ঝাড়খণ্ড পুলিশ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে 13 সদস্যের একটি বিশেষ তদন্ত দল গঠন করেছে। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ স্ক্যান করে অভিযুক্ত দুজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। রেলস্টেশন থেকে বাড়ি ফেরার সময় গিরি হামলার শিকার হন। প্রধান ও তার সাত সহযোগী হামলায় জড়িত ছিল। এসপি শেখর জানান, বাকি অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

হত্যার পর উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে

পুলিশ গিরি হত্যার জন্য ভারতীয় দণ্ডবিধি, অস্ত্র আইন, বিস্ফোরক পদার্থ আইনের 302 ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছে। হত্যার পর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। জেলা প্রশাসনকে এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করতে হয়েছে। মোটরসাইকেলবাহী দুষ্কৃতীরা গিরিতে অপরিশোধিত বোমা ছুঁড়েছে। এরপর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরের দিন রবিবার গিরির সমর্থকরা মৃতদেহ শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার সময় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সম্প্রসারণ

ঝাড়খণ্ডের চক্রধরপুরে বজরং দলের কর্মী খুনের ঘটনায় দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত দুই আসামির নাম গুলজার হোসেন (২৫) ও মতিউর রহমান (২৭)।

12 নভেম্বর, চক্রধরপুর শহরের ভারত ভবন চকে বজরং দলের কর্মী কমলদেব গিরি (35) এর উপর একটি বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছিল। এর জেরেই গিরি মারা যায়। মঙ্গলবার, পুলিশ বলেছে যে হত্যার ঘটনাটি গিরি এবং সতীশ প্রধানের মধ্যে এলাকায় আধিপত্যের জন্য দীর্ঘ লড়াইয়ের ফল। পশ্চিম সিংভূম জেলার পুলিশ সুপার আশুতোষ শেখর জানিয়েছেন, প্রধান এই মামলার প্রধান অভিযুক্ত। তাকে এখনো গ্রেফতার করা হয়নি।

খুনের তদন্তে এসআইটি গঠন করা হয়েছে

ঝাড়খণ্ড পুলিশ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে 13 সদস্যের একটি বিশেষ তদন্ত দল গঠন করেছে। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ স্ক্যান করে অভিযুক্ত দুজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। রেলস্টেশন থেকে বাড়ি ফেরার সময় গিরি হামলার শিকার হন। প্রধান ও তার সাত সহযোগী হামলায় জড়িত ছিল। এসপি শেখর জানান, বাকি অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

হত্যার পর উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে

পুলিশ গিরি হত্যার জন্য ভারতীয় দণ্ডবিধি, অস্ত্র আইন, বিস্ফোরক পদার্থ আইনের 302 ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছে। হত্যার পর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। জেলা প্রশাসনকে এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করতে হয়েছে। মোটরসাইকেলবাহী দুষ্কৃতীরা গিরিতে অপরিশোধিত বোমা ছুঁড়েছে। এরপর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরের দিন রবিবার গিরির সমর্থকরা মৃতদেহ শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার সময় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

#ঝডখণড #বজর #দলর #করম #খনর #দই #অভযকত #গরফতর #চকরধরপর #বম #নকষপ

bhartiya dainik patrika

Yash Studio Keep Listening

yash studio

Connect With Us

Watch New Movies And Songs

shiva music

Read Hindi eBook

ebook-shiva-music

Bhartiya Dainik Patrika

bhartiya dainik patrika

Your Search for Property ends here

suneja realtor

Get Our App On Your Phone!

X